Goodman Travels

পাবনায় প্রেমিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি: পাবনার সাঁথিয়ায় হাইস্কুল পড়ুয়া এক ছাত্রীকে তার প্রেমিক ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ওই ছাত্রী সাঁথিয়া উপজেলার নন্দনপুর ইউনিয়নের একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী। অভিযুক্ত মনোয়ার হোসেন মুক্তা উপজেলার তেতুলিয়া গ্রামের মৃত শহীদ আলীর ছেলে।

 

ওই ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগ, প্রেমিক মুক্তা প্রেমিকার সঙ্গে প্রতারণা করেছে। গত বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) তার অন্য একটি মেয়ের সঙ্গে বিয়ের দিন ধার্য ছিল।

 

শুক্রবার সাঁথিয়া থানায় ওই ছাত্রী মা ধর্ষণের মামলা করেন। এতে উল্লেখ করা হয়েছে, কিছুদিন আগে মনোয়ার হোসেন মুক্তার সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এ সুযোগে গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে ওই ছাত্রীকে বাড়িতে ডেকে নেন প্রেমিক। একপর্যায়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে। তখন তাকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বাড়ি রেখে আসে প্রেমিক।

 

এদিকে বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) মুক্তা আরেকটি মেয়েকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়। এ খবর শুনে ওই ছাত্রী মুক্তার বাড়িতে গিয়ে ওঠে।

অপরদিকে প্রেমিক মনোয়ার হোসেন মুক্তার পরিবার থেকেও থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। পরে পুলিশ ওই ছাত্রীকে থানায় পুলিশ হেফাজতে থানায় নিয়ে যায়।

 

এ ব্যাপারে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে শুক্রবার সাঁথিয়া থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন।

 

সাঁথিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) আবুল কালাম জানান, ধর্ষিতার মেডিকেল পরীক্ষা করার জন্য সিভিল সার্জন অফিসে পাঠানো হবে।

 

সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, ‌‘এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। পুলিশ ধর্ষককে গ্রেফতার করার জন্য অভিযান শুরু করেছে।’