Goodman Travels

ভাঙ্গুড়ায় প্রেমের বিয়ে ৭ মাস না যেতেই গৃহবধুর আত্মহত্যা

বার্তা সংস্থা পিপ (পাবনা) : পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় প্রেমের বিয়ের ৭ মাস না যেতেই ভালোবাসার দাম না পেয়ে অভিমানে শিল্পী খাতুন (১৯) নামের এক গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে। শনিবার উপজেলার ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের কৈডাঙ্গা চরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সে ঐ এলাকার খাইরুলের ২য় স্ত্রী ও চরভাঙ্গুড়া রেলপাড়ার ইউসুফ আলীর মেয়ে। শিল্পীর পিতা সাংবাদিকদের জানান, সাত মাস পুর্বে শিল্পী কৈডাঙ্গা চরপাড়া গ্রামের খায়রুল ইসলামকে প্রেম করে বিয়ে করে। কিন্তু বিয়ের পরে সে জানতে পারে খায়রুল বিবাহিত ও দুই সন্তানের জনক । তখনই তার সংসারে শুরু হয় অশান্তি। তারপরও সে সকল অশান্তি সহ্য করে এতদিন স্বামীর বাড়িতেই ছিল। কিন্তু জামাই খায়রুল ইসলাম বড় বউকে বেশি ভালোবাসতো। শুক্রবার রাতে এ নিয়ে মেয়ে জামাইয়ের মধ্যে ঝগড়া হয়। জামাই তাকে মারপিটও করে । ফলে রাগ ও অভিমানে শনিবার ঘরের ডাবের সাথে গলায় ফাঁস নিয়ে আতœহত্যা করে। এসময় ইউসুফ আলী তার মেয়ের মৃত্যুর জন্য জামাই খায়রুল ইসলামকে দায়ী করেন।

ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মাসুদ রানা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, দুপুরে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাবনা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলেই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা। এ ব্যাপারে একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।