Goodman Travels

সাঁথিয়ায় গৃহবধূর হত্যা না আত্মহত্যা ?

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পাবনার সাঁথিয়ায় ইফাত আরা ইয়াসমিন মীম নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে। নিহত গৃহবধূ উপজেলার আমাইকোলা গ্রামের আয়নাল আকন্দ এর ছেলে আজাদের স্ত্রী ও মঞ্জুর কাদের মহিলা কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার আমাইকোলা গ্রামে স্বামীর বাড়িতে। এ ঘটনায় সাঁথিয়া থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। তবে এটা হত্যা না আত্মহত্যা এ নিয়ে চলছে নানা গুঞ্জণ।

 

পুলিশ ও পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, প্রায় দুই বছর আগে বেড়া উপজেলার হাতিগাড়া গ্রামের ইকবাল হোসেনের মেয়ের বিয়ে হয় পার্শ্ববর্তী আমাইকোলা গ্রামের আয়নাল আকন্দের ছেলে আজাদের সাথে। ঘটনার দিন রাতে আজাদের সাথে মীমের ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে মীম স্বামীর সাথে অভিমান করে গলায় ফাঁস নেয়। পরে তাকে বেড়া হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত বলে ঘোষণা করে থানায় ফোন দেন। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এদিকে মীমের বাবা ইকবাল হোসেন জানান, আজাদ আমার মেয়েকে মেরে ফেলেছে। আমার মেয়ে আত্মহত্যা করতে পারে না। তিনি বলেন, পুলিশকে বললাম আজাদ আমার মেয়েকে মেরে ফেলেছে কিন্তু পুলিশ তা না শুনে আমাকে ধমক দিয়ে বলেন, এখানে সাইন করেন। তবে বিষয়টি হত্যা না আত্মহত্যা এ নিয়ে এলাকায় চলছে নানা গুঞ্জন।

 

অপরদিকে এসআই মামুন মীমের বাবার কথা অস্বীকার করে বলেন, বুধবার স্বামীর অনুপস্থিতিতে মীম তার বান্ধবী ও এক বন্ধু ওদের বাড়িতে বেড়াতে আসে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ হয়। এরই এক পর্যায়ে মীম স্বামীর উপর অভিমান করে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে আত্মহত্যা। তবে ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।