Goodman Travels

পাবনায় প্রতিষ্ঠানের শহীদ মিনার ভেঙ্গে পিতার ম্যুরাল বানালেন এমপি

পাবনার সুজানগরে একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভাষাশহীদদের স্মরণে নির্মিত শহীদ মিনার ভেঙে স্থানীয় এমপির বাবার ম্যুরাল নির্মাণ করা হয়েছে।

উপজেলার সাতবাড়িয়া ডিগ্রি কলেজ প্রাঙ্গণে এই ম্যুরালের নির্মাণকাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে।

শহীদ মিনার ভেঙে এমপির বাবার ম্যুরাল নির্মাণের ঘটনায় স্থানীয় শিক্ষক, ছাত্রছাত্রী, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন মহলে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে জেলা প্রশাসক ও সুজানগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেছেন, আজ থেকেই নতুন শহীদ মিনার নির্মাণকাজ শুরু হবে।

সুজানগর উপজেলার সাতবাড়িয়া ডিগ্রি কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ফজলুল হক বলেন, কলেজ পরিচালনা কমিটি জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের পরামর্শে জায়গা নির্ধারণ করে স্থানীয় সংসদ সদস্য আহমেদ ফিরোজ কবিরের অর্থায়নে ম্যুরালটি নির্মাণ করা হচ্ছে। আর শহীদ মিনারটি জীর্ণদশায় থাকায় এটি ভেঙে নতুন শহীদ মিনার তৈরির সিদ্ধান্ত রয়েছে।

সাতবাড়িয়া কলেজের অধ্যক্ষ আবদুল বাছেত বাচ্চু বলেন, পাবনা-২ আসনের এমপি আহমেদ ফিরোজ কবিরের বাবা মরহুম আহমেদ তফিজ উদ্দিন তিনবারের এমপি এবং দুবারের উপজেলা চেয়ারম্যান ছিলেন। ১৯৬৬ সালে সাতবাড়িয়া কলেজ প্রতিষ্ঠায় তার অবদান রয়েছে। তার স্মৃতি রক্ষায় ম্যুরালটি তৈরি হচ্ছে।

তিনি বলেন, পুরনো শহীদ মিনারটির ডিজাইন ভুল ছিল এবং এটি ছিল কলেজের মূল গেটসংলগ্ন। শিক্ষার্থীদের এতে ফুল দেয়ায় সমস্যা হতো। এ জন্য ২০১৮ সালের জুন মাসের পরিচালনা পরিষদের সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, কলেজ ক্যাম্পাসের দক্ষিণ পাশে নতুন শহীদ মিনার নির্মাণ করা হবে। তবে টেকনিক্যাল ভুল হয়েছে, শহীদ মিনার নির্মাণকাজ শুরুর পর ম্যুরাল নির্মাণ করা উচিত ছিল।

এ ব্যাপারে পাবনার জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, শহীদ মিনার পাবনা জেলার ব্র্যান্ডিংয়ের বিষয়। এ জেলার শতভাগ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নির্মাণ করা হয়েছে। ভুল বোঝার অবকাশ নেই।

তিনি বলেন, পরিচালনা পরিষদের নেয়া আগের সিদ্ধান্ত মোতাবেক আজই ক্যাম্পাসে নতুন শহীদ মিনার নির্মাণের কাজ শুরু করার জন্য ইউএনওকে নির্দেশ দিয়েছি।

সুজানগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজিত দেবনাথ বলেন, ডিসি স্যারের সঙ্গে কথা হয়েছে। আজই (সোমবার) ক্যাম্পাসে নতুন শহীদ মিনার নির্মাণকাজ শুরু হচ্ছে।

এ ব্যাপারে পাবনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আহমেদ ফিরোজ কবিরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।