Goodman Travels

পাবনায় বাড়িতে ঢুকে নারীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ

পাবনা প্রতিনিধিঃ পাবনার সদর উপজেলার শিবরামপুর মহিষের ডিপো এলাকায় নিজ বাড়িতে দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক নারী। বাড়িওয়ালার সহযোগিতায় শিবরামপুর এলাকার চার যুবক মিলে এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ ভুক্তভোগীর। শুক্রবার ওই নারীকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়িওয়ালা হায়দার আলীকে আটক করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী নারী জানান, দুই মাস আগে তিনি ও তার গার্মেন্টস শ্রমিক ভাই মিলে শিবরামপুর এলাকায় হায়দার আলীর বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকেন। গত বুধবার কাজের চাপ বেশি থাকায় তার ভাই রাতে বাড়িতে ফেরেননি। রাতের খাবার শেষে ভুক্তভোগী নারী ঘুমিয়ে পড়লে বুধবার দিবাগত রাত ২টার দিকে বাড়িওয়ালার সহযোগিতায় চার যুবক ঘরে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষণ করে। রাত দুইটা থেকে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা পর্যন্ত ওই ঘরে অবস্থান করে তার উপর যুবকরা পাশবিক নির্যাতন চালায়।

বৃহস্পতিবার রাতে ভুক্তভোগী নারীর ভাই বাড়িতে ফিরে ঘটনা জানতে পারে। এ সময় নির্যাতিতা নারী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

পাবনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ ওবাইদুল হক জানান, ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগের ভিত্তিতে বাড়িওয়ালা হায়দারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। অভিযুক্ত যুবকদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। নির্যাতিতার নারীর চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।
পাবনা জেনারেল হাসপাতালের প্রসূতি রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. নার্গিস সুলতানা জানান, ভুক্তভোগী নারীর শারীরিক ও মানসিকভাবে প্রচণ্ড আঘাত পেয়েছে। আমরা তার চিকিৎসায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছি। প্রাথমিক পরীক্ষায় ধর্ষণের আলামত মিলেছে বলেও জানান তিনি।