Goodman Travels

পাবনায় ছেলেধরা সন্দেহে জনরোষ থেকে নারীসহ ৩ জনকে উদ্ধার

পাবনায় ছেলেধরা সন্দেহে জনরোষে পড়া এক নারীসহ তিনজনকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার দুপুরে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা থেকে জহুরুল (৩০) ও জিয়া উদ্দিন (৩৫) নামের দুই ব্যক্তি এবং সদর উপজেলার ভাড়ারা ইউনিয়নের দড়িভাউডাঙ্গা গ্রাম থেকে সোনিয়া (২৩) নামে এক নারীকে উদ্ধর করা হয়।

এদের মধ্যে সোনিয়া চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার উজিরপুর গ্রামের মো. মঞ্জুরের মেয়ে। তিনি বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ভিক্ষা করে জীবিকা নির্বাহ করেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

জহুরুল ও জিয়াউদ্দিন মানসিক ভারসাম্যহীন ভবঘুরে। তারা নিজেদের নাম ছাড়া কিছু বলতে পারে না। তারা রোহিঙ্গা বলে ধারণা করছে পুলিশ।

পাবনা সদর থানার ওসি ওবাইদুল হক জানান, প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, উদ্ধাররা কোনো ছেলেধরা নয়। জহুরুল ও জিয়াউদ্দিন মানসিক ভারসাম্যহীন ও ভবঘুরে। তাদের ভাষা পরিষ্কার বোঝা যায় না। তারা রোহিঙ্গা বলে মনে করা হচ্ছে। এছাড়া সোনিয়া ভিক্ষুক। তাদের বিষয়ে আরও তদন্ত করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এদিকে পাবনার পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম এক বিবৃতিতে ছেলেধরা সন্দেহে কোনো গুজবে কান না দেয়ার জন্য সবাইকে অনুরোধ করেছেন। তিনি বলেছেন, অপরিচিত কাউকে দেখলে বা গতিবিধি সন্দেহজনক হলে পুলিশে খবর দিন। কেউ আইন হাতে তুলে নেবেন না।