Goodman Travels

বিএসএমএমইউয়ে লিভার প্রতিস্থাপন স্বাস্থ্যসেবার নতুন মাইলফলক

ডেস্ক রিপোর্ট : স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, যে দেশের প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্যসেবা সম্পর্কে খোঁজ-খবর রাখেন সে দেশে স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নত হবেই হবে। তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের স্বাস্থ্যসেবা সম্পর্কে সব খোঁজ খবর রাখেন এবং স্বাস্থ্য সেবার উন্নয়নে প্রয়োজনীয় পরামর্শও দিয়ে থাকেন। তাই স্বাস্থ্যসেবার মান উন্নয়ন হতেই হবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যলয়ে (বিএসএমএইউ) ২৪ জুন প্রথমবারের মতো সিরাজুল ইসলাম নামে ২০ বছর বয়সী এক তরুণের দেহে সফল অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে লিভার প্রতিস্থাপন উপলক্ষে আজ (মঙ্গলবার) বিশ্ববিদ্যালয়ের মিল্টন হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে তিনি এ সব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিএসএমএমইউতে সফল লিভার প্রতিস্থাপন স্বাস্থ্যসেবার ক্ষেত্রে একটি নতুন মাইলফলক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শত ব্যস্ততার মাঝে লিভার প্রতিস্থাপন অস্ত্রোপচার সম্পর্কে খোঁজ খবর নিয়েছেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, লিভার প্রতিস্থাপন একটি জটিল, দীর্ঘমেয়াদি ও অত্যন্ত ব্যয়সাপেক্ষ চিকিৎসা। বাংলাদেশে লিভার প্রতিস্থাপনের সুযোগ না থাকায় প্রতিবছর পাঁচ শতাধিক লোক লিভার প্রতিস্থাপনের জন্য প্রতিবেশী দেশ ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চলে যাচ্ছেন। একজনের লিভার প্রতিস্থাপনে এক থেকে দুই কোটি টাকা খরচ হচ্ছে। বিএসএমএমইউতে লিভার প্রতিস্থাপন শুরু হলে দেশের মানুষ অপেক্ষাকৃত কম খরচে লিভার প্রতিস্থাপনের সুযোগ পাবে। তিনি বিএসএমএমইউতে লিভার প্রতিস্থাপন কার্যক্রম নিয়মিত পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় সকল ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন। তিনি গতকাল অস্ত্রোপচারে অংশগ্রহনকারী ৬০ সদস্যের চিকিৎসক দলকে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানান।

বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডা.কনক কান্তি বড়ুয়া জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লিভার প্রতিস্থাপন অস্ত্রোপচার সম্পর্কে গতকাল একাধিকবার খোঁজ খবর নিয়েছেন। তিনি অস্ত্রোপচার পরবর্তী সময়ে সাবধানতা অবলম্বন সম্পর্কেও পরামর্শ দেন।