Goodman Travels

পাবনায় ৮ম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের প্রতিবাদে মানববন্ধন-সমাবেশ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার একদন্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী (১২) ধর্ষণের প্রতিবাদে এবং দোষীকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
আজ বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টায় পাবনা প্রেসকাবের সামনে আমরাই পারি পারিবারিক নির্যাতন প্রতিরোধ জোট, যৌন হয় রানি নির্মূল করণ নেটওয়ার্ক ও মহিলা পরিষদের যৌথ উদ্যোগে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধনে একদন্ত এলাকাবাসী, ধর্ষিতার স্বজনরা, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, সাংবাদিক, আইনজীবিসহ বিভিন্ন পেশাজীবিরা অংশ গ্রহন করেন।
আমরাই পারি পারিবারিক নির্যাতন প্রতিরোধ জোটের চেয়ারপার্সন বিশিষ্ট সাংবাদিক আব্দুল মতীন খানের সভাপতিত্বে মানববন্ধন সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ব্র্যাক সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচি‘র (সিইপি) জেলা ব্যবস্থাপক লুইস গমেজ, যৌন হয়রানি নির্মূল করণ নেটওয়ার্কের আহবায়ক সেলিম নাজির উচ্চবিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হাসিনা আক্তার রোজি, মহিলা পরিষদের সাধারন সম্পাদক এড, কামরুন্নাহার জলি, আমরাই পারি‘র (উইকেন) প্রজেক্ট কো-অডিনেটর এড. শাহীনা পারভীন, বাঁচতে চাই‘র নির্বাহী পরিচালক আব্দুর রব মন্টু, টাউন গাল্স উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবিউল ইসলাম, এলাকাবাসী আসলাম প্রমুখ। সমাবেশে পরিচালনা করেন যৌন হয়রানি নির্মূল করণ নেটওয়ার্কের সদস্য সাংবাদিক কামাল সিদ্দিকী।
বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, স্কুল ছাত্রী ধর্ষনের শিকার হলেও রহস্যজন কারনে এলাকার প্রভাবশালীদের মন রক্ষা করতে আটঘরিয়া থানা পুলিশ ধর্ষন প্রচেষ্টা হিসেবে মামলা রুজু করতে ধর্ষিতার বাবাকে বাধ্য করেছেন। পরিবারটি বর্তমানে হুমকির মুখে রয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়।

উল্লেখ্য গত ১০ জুন আটঘরিয়া উপজেলার একদন্ত হাইস্কুলের পাশে ওই স্কুলের পার্টটাইম শিক আরিফুল ইসলাম আরিফের পরিচালিত কোচিং সেন্টারে প্রাইভেট পড়তে যায় ৮ম শ্রেনীর ওই স্কুল ছাত্রী। প্রাইভেট শেষে বাড়ি ফেরার পথে একদন্ত হাইস্কুলের সামনের কসমেটিক্সের দোকানদার ও একদন্তের নরজান গ্রামের আব্দুল্লাহ’র ছেলে আকাশ (২২) ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক একদন্ত কলেজের অদূরে ফাঁকা সড়কের পাশে একটি পাট েেত নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় চিৎকার দিয়ে স্কুল ছাত্রী জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। স্থানীয়রা বিষয়টি টের পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে ধর্ষক আকাশ পালিয়ে যায়। অসুস্থ অবস্থায় ওই ছাত্রীকে পানি ঢেলে জ্ঞান ফিরিয়ে আনা এবং শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।