Goodman Travels

পাবনায় নির্বাচনী সভায় উত্তেজনা, ‘স্ট্রোকে’ আ’লীগ নেতার মৃত্যু

পাবনা প্রতিনিধি: পাবনা-১ (সাঁথিয়া-বেড়া) আসনে স্ট্রোক করে তোফাজ্জল হোসেন মন্ডল (৫০) নামে স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতার মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে সাঁথিয়া উপজেলার গৌড়িগ্রাম মাদ্রাসা মাঠে এ ঘটনা ঘটে। সেখানে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী অধ্যাপক আবু সাইয়িদের নির্বাচনী সভা হওয়ার কথা ছিল।

তোফাজ্জল গৌড়িগ্রামের মৃত সেকেন্দার আলী মন্ডলের ছেলে এবং সাঁথিয়া উপজেলার গৌড়িগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।

এ ছাড়া তোফাজ্জল গৌড়িগ্রাম দাখিল মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও পাবনা-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকুর সমর্থক বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ও আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক আবু সাইয়িদ পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ‘গৌড়িগ্রামে নির্বাচনী সভায় পৌঁছানোর পরপরই আমার গাড়ি লক্ষ্য করে কয়েকটি বোমা হামলা করা হয়। এ সময় বোমা নিক্ষেপকারী দলের একজন হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন বলে জেনেছি।’

তবে সাঁথিয়া থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম দাবি করেন, ‘গৌড়িগ্রামে আবু সাইয়িদের নির্বাচনী সভায় বোমা হামলার কোনো ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু, সেখানে হার্ট অ্যাটাকে তোফাজ্জল মন্ডল নামে স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতা মারা গেছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী অধ্যাপক আবু সাইয়িদ শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে গৌড়িগ্রামে আসার আগেই দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ও সংঘর্ষ হয়। এ সময় ৫/৬টি গাড়ি ও অটোবাইক ভাংচুর করা হয়। পরে আবু সাইয়িদ সভা না করেই চলে যান।’

তোফাজ্জলের মৃত্যুর বিষয়ে জানতে পাবনা-১ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকুর মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করেও কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।
পাবনা-১ (সাঁথিয়া-বেড়া) আসনে স্ট্রোক করে তোফাজ্জল হোসেন মন্ডল (৫০) নামে স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতার মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে সাঁথিয়া উপজেলার গৌড়িগ্রাম মাদ্রাসা মাঠে এ ঘটনা ঘটে। সেখানে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী অধ্যাপক আবু সাইয়িদের নির্বাচনী সভা হওয়ার কথা ছিল।

তোফাজ্জল গৌড়িগ্রামের মৃত সেকেন্দার আলী মন্ডলের ছেলে এবং সাঁথিয়া উপজেলার গৌড়িগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।

এ ছাড়া তোফাজ্জল গৌড়িগ্রাম দাখিল মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও পাবনা-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকুর সমর্থক বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ও আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক আবু সাইয়িদ পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ‘গৌড়িগ্রামে নির্বাচনী সভায় পৌঁছানোর পরপরই আমার গাড়ি লক্ষ্য করে কয়েকটি বোমা হামলা করা হয়। এ সময় বোমা নিক্ষেপকারী দলের একজন হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন বলে জেনেছি।

তবে সাঁথিয়া থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম দাবি করেন, ‘গৌড়িগ্রামে আবু সাইয়িদের নির্বাচনী সভায় বোমা হামলার কোনো ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু, সেখানে হার্ট অ্যাটাকে তোফাজ্জল মন্ডল নামে স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতা মারা গেছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী অধ্যাপক আবু সাইয়িদ শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে গৌড়িগ্রামে আসার আগেই দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ও সংঘর্ষ হয়। এ সময় ৫/৬টি গাড়ি ও অটোবাইক ভাংচুর করা হয়। পরে আবু সাইয়িদ সভা না করেই চলে যান।’

তোফাজ্জলের মৃত্যুর বিষয়ে জানতে পাবনা-১ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকুর মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করেও কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। (সূত্র পরিবর্তন)